,

ভুট্টা চাষে লাভজনক হওয়ায় আগ্রহ বাড়ছে চরাঞ্চলের কৃষকদের

আলোকিত ডেস্ক : খরচ কম, লাভ বেশী। অর্থনৈতিকভাবে লাভজনক হওয়ায় শেরপুরের চরাঞ্চলে ভুট্টা চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের।

ধান চাষে অধিক সেচ ও খরচ বেশী হওয়ায় বিকল্প ফসল হিসেবে দিন দিন বাড়ছে ভুট্টার আবাদ। তাছাড়া চরাঞ্চলের উর্বর মাটি ভুট্টা চাষের উপযোগী হওয়ায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরও কৃষকদের ভুট্টা চাষে পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের হিসাব মতে, এবার সদর উপজেলা চরাঞ্চলে প্রায় ৭২০ হেক্টর জমিতে ভুট্টার আবাদ হয়েছে। রাজস্ব খাত এবং কৃষি পূনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় কৃষকদের ভুট্টা চাষে প্রণোদনা প্রদান করা হচ্ছে।

১ এপ্রিল সোমবার বিকেলে শেরপুর সদর উপজেলার বেতমারি-ঘুঘুরাকন্দি ইউনিয়নের রশিদপুর গ্রামের কৃষক মাঠ স্কুল প্রাঙ্গণে রাজস্ব খাতের অর্থায়নে ভুট্টা আবাদের এক প্রদর্শনী মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়।

মাঠ দিবসের আলোচনা সভায় কৃষকরা জানান, সুপারসাইন জাতের হাইব্রীড ভুট্টা আবাদ করে বিঘা প্রতি প্রায় ৪০ থেকে ৪৫ মণ করে ফলন মিলেছে। মাঠ দিবসে শেরপুর খামারবাড়ীর উপ-পরিচালক আশরাফ উদ্দিন প্রধান অতিথি এবং সদর ইউএনও ফিরোজ আল মামুন ও কৃষি কর্মকর্তা পিকন কুমার সাহা বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ। এসময় অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা জাহিদ আনোয়ার, টিটো, কৃষক জাহাঙ্গীর আলম, রতন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে এলাকার শতাধিক কৃষক-কৃষানী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© 2016 allrights reserved to AlokitoSherpur.Com | Desing & Developed BY Popular-IT.Com Server Managed BY PopularServer.Com